Main Menu

মুক্তিযোদ্ধাকে গালি দেওয়ার অভিযোগে শরীয়তপুর সংসদ সদস্যর বিরুদ্ধে বিক্ষোভ

রুদ্রবার্তা প্রতিবেদক ॥ শরীয়তপুর-১ আসনের সংসদ সদস্য, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও প্যানেল ডেপুটি স্পীকার বিএম মোজাম্মেল হক জাজিরায় মুক্তিযোদ্ধা সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে মুক্তিযোদ্ধাদের গালি দেওয়ার অভিযো তুলে প্রতিবাদে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে শরীয়তপুরের মুক্তিযোদ্ধা ও এলাকাবাসী।
বৃহস্পতিবার (১৮ জানুয়ারি) দুপুরে শরীয়তপুর কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে বিক্ষোভ সমাবেশ শেষে জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সামনে মানববন্ধন করেন তারা।
মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন, শরীয়তপুর জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি ও শরীয়তপুর পৌরসভার সাবেক মেয়র মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রব মুন্সীর নেতৃত্বে উপস্থিত ছিলেন জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কমান্ডের সাবেক কমান্ডার আব্দুল জলিল হাওলাদার, জাজিরা থানার যুদ্ধকালিন কমান্ডার আব্দুর রাজ্জাক, মুক্তিযোদ্ধা আবুল কাশেম মিয়া, মো. আলীম উদ্দিন শেখ, শেখ মো. সোলাইমান, আবুল হাশেম মিয়া, আদেল উদ্দিন মাস্টার, আবুল কাশেম ফকির, মোতাহার দেওয়ান, সলেমান বেপারী, আব্দুর রহমান খান, আমির হোসেন খান, হাফিজ উদ্দিন পেদা, হযরত আলী তস্তার, আব্দুল কালাম সরদার, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ উপ কমিটির সহসম্পাদক মানিক ব্যানার্জী, শরীয়তপুর পৌরসভার প্যানেল মেয়র মো. বাচ্চু বেপারী, জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি এনামুল হক মুন্সী, সাধারণ সম্পাদক মো. তাইজুল ইসলাম সরকারসহ মুক্তিযোদ্ধা, বিভিন্ন রাজনৈতিক সংগঠন, সামাজিক সংগঠনের লোকজন।
জানা যায়, জাজিরা উপজেলার জাজিরা মহর আলী পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠে জাজিরা উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে গত ১৬ ডিসেম্বর মহান বিজয় দিবস উপলক্ষ্যে মুক্তিযোদ্ধা, যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা ও শহীদ পরিবারের সদস্যদের সংবর্ধনা ও আলোচনা সভায় সংসদ সদস্য বিএম মোজাম্মেল হক স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধা আলী হোসেন খান নামে এক মুক্তিযোদ্ধাকে গালিগালাজ করেছে বলে দাবী জানান। প্রতিবাদ ও মানববন্ধনে শরীয়তপুর জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি ও শরীয়তপুর পৌরসভার সাবেক মেয়র মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রব মুন্সী বলেন, আওয়ামী লীগ কিংবা এমপি হলেই সে মুক্তিযোদ্ধাদের এভাবে গালিগালাজ করতে পারে না। আমি এর তিব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই। আমি এই এমপির বিচার দাবী করছি।